Youth Science Academy
AD
AD 2
বিজ্ঞানের খাতা [পর্ব-৪৮] :: প্রোপেন (জ্বালানী গ্যাস)

বিজ্ঞানের খাতা [পর্ব-৪৮] :: প্রোপেন (জ্বালানী গ্যাস)

প্রোপেন হচ্ছে তিন কার্বন বিশিষ্ট একটি এলকেন যার আনবিক সংকেত {{chem|C|3|H|8}}, সাধারনত একটি গ্যাসীয় পদার্থ কিন্তু উচ্চচাপে বহনযোগ্য তরলে রুপান্তর করা সম্ভব। পেট্রোলিয়াম শোধন এবং প্রাকৃতিক গ্যাস প্রক্রিয়াকরণের সময় এটি উপজাত হিসেবে উৎপন্ন হয়। এটা ইঞ্জিনের জ্বালানী হিসেবে বহুলভাবে ব্যবহৃত হয়।

প্রোপেন তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাস গ্রুপের সদস্য। এই গ্রুপের অন্য সদস্যরা হলো বিউটেন, প্রোপিলিন, বিউটাডিন, বিউটিন, আইসোবিউটিলিন এবং তাদের মিশ্রণ। অতিমাত্রায় প্রোপিন (এর আরেকটা নাম প্রোপিলিন) সমৃদ্ধ প্রোপেন গ্যাস যানবাহনের জ্বালানী হিসেবে উপযোগী নয়। প্রোপেনে সর্বোচ্চ ৫% প্রোপিন থাকতে পারবে। সকল প্রোপেনের একটি সুগন্ধি যৌগ বা এরোমেটিক কমপাউন্ড থাকে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে ইথেন থাই অল থাকে। তাই কোন কারণে সিলিন্ডার লিক হলে মানুষ সহজেই গ্যাসের গন্ধ টের পায়।

ইতিহাস
১৯১০ সালে ওয়াল্টার স্নেলিং গ্যাসোলিনের মাঝে উদ্বায়ী পদার্থ হিসেবে প্রোপেনের উপস্থিতি সনাক্ত করেন। এই হালকা হাইড্রোকার্বনের উদ্বায়ী স্বভাবের জন্য এটাকে বুনো গ্যাসের পরিচিতি এনে দেয়। ৩১ মার্চ নিউ ইয়র্ক টাইমস স্নেলিং এর কাজের উপর প্রতিবেদন ছাপায়। "...a steel bottle will carry enough gas to light an ordinary home for three weeks." এই সময়ে স্নেলিং ফ্রাংক পিটারসন, চেস্টার ক্যার এবং আর্থার ক্যার এর সহায়তায় প্রাকৃতি গ্যাসোলিন শোধনের সময় এলপি গ্যাসকে তরল করার পদ্ধতি আবিষ্কার করেন। তারা একত্রে আমেরিকান গ্যাসোলিন কোম্পানী প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯১১ সালে স্নেলিং বিশুদ্ধ প্রোপেন আবিষ্কার করেন এবং ১৯১৩ সালের ২৫ মার্চ এলপি গ্যাস প্রক্রিয়াকরণ এবং উৎপাদন ইস্যু করা হয়। ফ্রাঙ্ক পিটারসন এলপি গ্যাস উৎপাদনের আরেকটি পদ্ধতি আবিষ্কার করেন যা ১৯১২ সালে প্যাটেন্ট লাভ করে।

নামকরণ
আইইউপিএসি অনুসারে প্রোপেনের নামকরণ করা হয়েছে। এখানে প্রপ দ্বারা যৌগে তিন কার্বনের উপস্থিতি বোঝানো হয়েছে।
প্রোপেনের সংকেতঃ C3H
গাঠনিক সংকেতঃ CH3- CH2- CH3

ভৌত ধর্ম
প্রোপেন একটি বর্ণহীন গ্যাস। উৎস
প্রোপেনের প্রধান উৎস প্রাকৃতি গ্যাস এবং পেট্রোলিয়াম। এই দুই ক্ষেত্রে প্রোপেন উপজাত বা বাই-প্রোডাক্ট হিসেবে উৎপন্ন হয়। প্রাকৃতিক গ্যাস প্রক্রিয়াকরণের সময় কাঁচামাল থেকে বিউটেন, প্রোপেন এবং ইথেন|ইথেনের বড় অংশ আলাদা করা হয়। এই উদ্বায়ী গ্যাসগুলো আলাদা করা না হলে পাইপলাইন জমে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

বৈশিষ্ট্য এবং বিক্রিয়া
প্রোপেন অন্যান্য এলকেনের মত দহন বিক্রিয়ায় অংশ নেয়। অক্সিজেনের উপস্থিতিতে প্রোপেনের দহনে পানি ও কার্বন ডাই অক্সাইড উৎপন্ন হয়

C3H8 + 5 O2 → 3 CO2 + 4 H2O + তাপ : প্রোপেন + অক্সিজেন → কার্বন ডাই অক্সাইড + পানি + তাপ

অক্সিজেনের স্বল্পতার কারণে পূর্ণ দহন সংঘটিত হয় না। তারফলে পানি , কার্বন মনোক্সাইড এবং কার্বন ডাই অক্সাইড উৎপন্ন হয়।

C3H8 + 4.5 O2 → 2 CO2 + CO + 4 H2O + তাপ : প্রোপেন + অক্সিজেন → কার্বন ডাই অক্সাইড + কার্বন মনোক্সাইড + Water

তবে প্রোপেন অন্যান্য প্রাকৃতিক গ্যাসের তুলনায় বাতাসের চেয়ে ভারী। পূর্ণ দহনে প্রোপেন ৫০ MJ/kg তাপ উৎপন্ন করে। প্রোপেন বিষাক্ত নয়।

শক্তি উপাদান
প্রোপেন গ্যাসের দহন এনথালপি হচ্ছে (−২২১৯.২ ± ০.৫) kJ/mol বা (৫০.৩৩ ± ০.০১) MJ/kg ।

ঘনত্ব
২৫ °C (৭৭ °F) তরল প্রোপেনের ঘন্ত্ব ০.৪৯৩ g/cm3

ব্যবহার
নিম্ন গলনাংকের কারণে প্রোপেন খুব সহজেই বাষ্পীভূত হতে পারে। একারণে প্রোপেন বারবিকিউ এবং বহনযোগ্য চুলায় জ্বালানী হিসেবে ব্যবহার করা হয়। অনেক বাস, ট্যাক্সিক্যাব এবং ফর্কলিফটে প্রোপেনকে জ্বালনী হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

গৃহস্থালী এবং শিল্প জ্বালানী
শিল্প কারখানার বাইরে প্রোপেনের ব্যবহার দিনদিন বেড়েই চলেছে। কাঠ এবং অন্যান্য জ্বালানীর স্থান দখন করছে প্রোপেন গ্যাস। অনেক জায়গায় প্রোপেন '"রান্নার গ্যাস"' নামে পরিচিত। মূলত প্রোপেন এবং বিউটেনের মিশ্রণ জ্বালানী হিসেবে বিক্রি করা হয়।

যানবাহনে ব্যবহার
যেসকল হাইড্রোকার্বন দহনযোগ্যবহন করে সেগুলো শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা এবং মোটরচালিত যানবাহনে ব্যবহার নিরুৎসাহিত বা নিষিদ্ধ করা হয়। কারণ এই সকল ক্ষেত্রে বিষ্ফোরণের ঝুঁকি থাকে।

ব্যবহার
গৃহস্থালী কাজে জ্বালানী হিসেবে।
রেফ্রিজারেশানে।
বারবিকিউ রেস্তোরায়।
যানবাহনের জ্বালানী হিসেবে।
ঝালাইয়ের কাজে প্রোপেনকে প্রাথমিক দহন গ্যাস হিসেবে ব্যবহার করা হয়।
গরম বাতাস বেলুন গুলোর প্রাথমিক জ্বালানী হিসেবে প্রোপেন ব্যবহার করা হয়।
অর্ধপরিবাহী উৎপাদনে সিলিকন কার্বাইড সংরক্ষণে প্রোপেন ব্যবহার করা হয়।
থিম পার্ক এবং চলচিত্র শিল্পে বিষ্ফোরণ সহ বিশেষ দৃশের জন্য সুলভ এবং উচ্চশক্তিসম্পন্ন জ্বালানী হিসেবে প্রোপেন ব্যবহার করা হয়।
বাড়িতে ব্যবহৃত বাতাস সতেজকরণ স্প্রে বা এয়ার ফ্রেশনার স্প্রে তে প্রোপেল্যান্ট হিসেবে প্রোপেন ব্যবহার করা হয়।

ঝুঁকি
প্রোপেন বাতাসের চেয়ে ভারী। যদি কখনো প্রোপেন বহনকারী সিলিন্ডার বা পাইপ লাইন ফেটে যায় সেক্ষেত্রে প্রোপেন কাছাকাছি নিচু জায়গায় জমা হয় এবং বিষ্ফোরণের ঝুঁকি তৈরী করে।

Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads AdsAds Ads Ads Ads Ads Adsss Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads AdsAds Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads AdsAds Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads AdsAds Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads AdsAds Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads AdsAds Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads Ads AdsAds Ads Ads Ads Ads Ads
AD Place
hair tonic